Bangla News Line Logo
bangla fonts
২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, শুক্রবার ১৪ আগস্ট ২০২০, ৬:০৩ পূর্বাহ্ণ
facebook twitter google plus rss
সর্বশেষ
মদনে নৌকাডুবিতে সাত দিনের মধ্যোই রিপোর্ট দেয়া হবে- তদন্ত কমিটি কেন্দুয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় অটোরিক্সা চালক নিহত কেন্দুয়ায় নানা বাড়িতে এসে পুকুরে ডুবে শিশুর মৃত্যু কেন্দুয়ায় করোনা উপসর্গ নিয়ে কবিরাজের মৃত্যু যেভাবে পালাচ্ছিলেন সাহেদ;তার বিরুদ্ধে যত মামলা

“অসীম উকিলের লাইগ্যা আল্লাহর কাছে রোজ রোজ দোয়া করি ”


নিজস্ব প্রতিবেদক, বাংলানিউজলাইন ডটকম:


“অসীম উকিলের লাইগ্যা আল্লাহর কাছে রোজ রোজ দোয়া করি ”

“আল্লাহর কাছে দোয়া করি অসীম উকিল এমপি অউক, দুহাত তুইল্যা দোয়া করি মনোনয়ন পাউক,এমপি অউক,মন্ত্রী অউক। অসীম উকিলের লাইগ্যা আল্লাহর কাছে রোজ রোজ দোয়া করি। যে কয়ডা দিন বাইচ্যা আছি রোজেই দোয়া করবাম। ”

বলছিলেন, ৯৫ বছরের অশীতিপর জয়বানু আক্তার। নেত্রকোণার কেন্দুয়া উপজেলার গড়াডোবা ইউনিয়নের বাসিন্দা এই জ্যেষ্ঠ নাগরিক জয়বানু।

“এমপি অইলে এইহানে শান্তি থাকব। আল্লাহর রহমতে অসীম উকিল পাশও করবো,” হাস্যোজ্জল মুখে  বলেন,  জয়বানু।

চোখে কিছুটা কম দেখেন । শরীরেও তেমন কুলোয় না। তবুও মনের টানে ছুটে এসেছেন স্থানীয় বাঁশাটি উচ্চ বিদ্যালয়ে আওয়ামী লীগের মতবিনিময়সভায় । দেখতে আওয়ামী লীগের সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল ও তার পত্নী যুব মহিলা লীগের  সাধারণ সম্পাদক, সাবেক সাংসদ অধ্যাপিকা অপু উকিলকে।

ভীড় ঠেলে মঞ্চের খুব কাছ থেকে দেখে বাড়ি ফেরার সময় তার মনের কথাগুলো এভাবেই ব্যক্ত করেন,  এই প্রতিবেদকের কাছে। 

বয়সের ভাড়ে ন্যূয়ে পড়া জয়বানুকে সাথে নিয়ে আসেন প্রতিবেশি  ৬১ বছর বয়সী নারী সখিনা খাতুন; যিনি মুক্তিযোদ্ধা আবুল হাসেমের স্ত্রী।

তিনি বলেন, “আল্লাহ ভরসা। নামাজ পড়ে রোজই দোয়া করবাম অসীম উকিলের লাইগ্যা।”

বাঁশাটি গ্রামের  ৯৪ বছরের বৃদ্ধ আব্দুল মন্নাফ। কানে কিছুটা কম শোনেন। কোমরে ব্যাথা নিয়ে লাঠিতে ভর দিয়ে দিয়ে  সভায় আসেন তিনি। মাঠের এক প্রান্তে কিছুটা ফাঁকায় বসে সভা শুনছিলেন। এ সময় এই প্রতিবেদককে বলেন, “অসীম উকিল, অপু উকিল ভালা মানুষ। হেরারে দেখতে আইলাম। এই রহম ভালা মানুষরা এমপি মন্ত্রী অইলে এলাকার উপকার আইবো। বাইচ্যা থাকলে অসীম উকিলরে ভোট দিয়াম।”

গড়াডোবা গ্রামের মধ্য বয়সী সিরাজ উদ্দিন। সভাস্থল থেকে বাড়ি অনেকটা দূরে হওয়ায়  তিনি সাইকেলে চড়ে সভায় এসেছেন জানিয়ে বলেন, “আওয়ামী লীগের পরীক্ষিত নেতা অসীম উকিল। তিনি নৌকার প্রার্থী হলে অন্য প্রার্থীরা প্রতিদ্বন্ধিতাতেই আসবে না। এমপি না হয়েও এলাকার উন্নয়ন করছেন। এমপি হলে এই এলাকা আর অবহেলিত থাকবে না।

 আমরা এক দশক ধরে এখানকার এমপিদের দেখছি। মঞ্জুর কাদের কোরায়শীকে দেখেছি। বর্তমান এমপিকে দেখছি।” কি উন্নয়ন তারা করেছেন প্রশ্ন রেখে সিরাজ উদ্দিন বলেন, “আমাদের ভোট নিয়ে এমপি হয়ে যারা এলাকার উন্নয়নে ভুমিকা রাখেন না তাদেরকে মানোনয়ন দিলে কেন ভোট দেব,”  যোগ করেন  স্থানীয় এই ভোটার।

উপজেলার রামপুর থেকে সভায় এসেছেন, যুবক সাইদুল ইসলাম। তিনি বলেন, “অসীম উকিল জনমতের দিক দিয়ে সাবার থেকে এগিয়ে রয়েছেন। মানুষ হিসেবে অনেক ভাল। ”মনোনয়ন পেলে ভোট দেবেন জানিয়ে বলেন, “বিপদে আপদে সবকিছুতেই পাই। যে কোন কাজে গেলে সহযোগিতা পাই। যেমন সমস্যায় পাই, তেমনি এলাকার সব ধর্মের উৎসবেও পাই অসীম উকিলের পাশাপাশি অপু  উকিলকেও।”

বাশাটি গ্রামের ৭৫ বছরের মো :আবুল হাসেম প্রতিবেদককে বলেন, “জননেতা অসীম উকিল দুর্নীতিবাজ নন। তার দ্বারা এলাকার উন্নয়ন সম্ভব।” একই গ্রামের ফকর উদ্দিন।

তিনি বলেন, “অসীম উকিলের দক্ষতা আছে। মায়া-মমতা আছে। মানুষের কষ্ট বোঝেন। এমপি হওয়ার শতভাগ যোগ্য অসীম উকিল । তা ছাড়া তিনি এমপি হলে আমরা তাকে মন্ত্রীও আশা করতে পারি। এলাকার অনেক উন্নয়ন হবে।”

“মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশ বিনির্মাণে আত্মনিয়োগ করবেন । এতে কোন রকম ব্যত্যয় হবে না”; অসীম উকিলকে নিয়ে দৃঢ় এই বিশ্বাস পোষণ করেন, কেন্দুয়া উপজেলার আশুজিয়া গ্রামের বাসিন্দা ও কেন্দুয়া ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী মো : দীন ইসলাম। জীবনের প্রথমবার ভোট দেবেন আগামী সংসদ নির্বাচনে।

তিনি বলেন, “সৎ, যোগ্য, শিক্ষিত, মার্জিত, পরিশিলীত মানুষ অসীম উকিলকেই ভোটটা দিয়ে ভোটের ইনিংস শুরু করতে চাই। আমার আশা আমাদের ভোটে নির্বাচিত হয়ে অসীম উকিল সারা দেশের সেবা করবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত শক্তিশালী হবে। এটা আমাদের জন্যে অহংকারের হবে।”

নতুন প্রজন্মের আরেক ভোটার বাশাটি গ্রামের সাব্বির হোসেন। তিনি জেলার বাইরে চাকরি করেন।এবারই তিনি ভোট দেবেন প্রথম। তিনি ছুটিতে বাড়ি এসে সভায় আসেন। তিনি বলেন, “উন্নয়নের কথা বলে । নির্বাচনের পর আর খুঁজে পাওয়া যায় না। কিন্তু অসীম উকিল এমন হবেননা। আল্লাহ তৌফিক দিলে জীবনের প্রথম ভোটটা অসীম উকিলকেই দেব। মোবাইলে অসীম উকিলের ছবি তুলে নিয়ে যাচ্ছি। বাড়িতে মাকে দেখাব। লোক ভাল। বাড়ির সবাইকে বলবো। প্রার্থী হলে অসীম উকিলকে ভোট দিতে।”

 

গত ১৬ অক্টোবর নেত্রকোণার গড়াডোবা ইউনিয়েনের বাঁশাটি  উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন, আওয়ামী লীগের সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম উকিল, মূখ্য আলোচক ছিলেন, যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপিকা অপু উকিল। এতে সভাপতিত্ব করেন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহাজাহান ভুইয়া।

বাংলানিউজ লাইন.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: