Bangla News Line Logo
bangla fonts
১২ মাঘ ১৪২৭, মঙ্গলবার ২৬ জানুয়ারি ২০২১, ২:৪৩ পূর্বাহ্ণ
facebook twitter google plus rss
সর্বশেষ
গৃহহীনদের লাঞ্ছনা দিনের অবসান কেন্দুয়া-মোহনগঞ্জে নৌকার বিপুল জয়ে প্রশান্ত’র অভিনন্দন নেত্রকোণা পৌরসভা: ইভিএমের ভোটে ৬৬ প্রার্থীতা মোহনগঞ্জ পৌরসভায় আ. লীগ প্রার্থী জয়ী কেন্দুয়া পৌরসভা আবারো আ. লীগের দখলে

হান্নান খানের মৃত্যুতে নেত্রকোণায় শোক, কাল দাফনের প্রস্তুতি


নিজস্ব প্রতিবেদক, বাংলানিউজলাইন ডটকম:8:13:04 PM11/29/2020


হান্নান খানের মৃত্যুতে নেত্রকোণায় শোক, কাল দাফনের প্রস্তুতি
ছবি : হান্নান খানের বাড়ি

 আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থার সমন্বয়ক এম আব্দুল হান্নান খানের মৃত্যুতে তার নিজ জেলা নেত্রকোণায় নেমে এসেছে শোক।  জেলার পূর্বধলার উপজেলার খলিশাউড় গ্রামের বাড়িতে স্বজন হারানোর বেদনাবিধূর পরিবেশ বিরাজ করছে। এলাকাবাসি বলছেন, হান্নান খানের চিরবিদায়ে তারা একজন মহানুভব মানুষ হারিয়েছেন। যা পোষাবার নয়।

আগামীকাল সোমবার গ্রামের বাড়িতে দাফন হওয়ার বিষয়ে প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। তবে জেলা প্রশাসন এখনও জানাজা, দাফনের বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারেনি।

১৯৪১ সালে  খলিশাউড় খান পরিবারে জন্ম নেয়া বীর এই মুক্তিযোদ্ধা রোববার বেলা পৌনে ১টার দিকে  করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ)  মারা যান  বলে তার সর্বশেষ কর্মস্থল সংস্থাটির সহ-সমন্বয়ক সানাউল হক জানিয়েছেন।

 মৃত্যুর আগে জীবনের ৭৯টি বছর অতিক্রম করা বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার প্রধান তদন্ত তদারক কর্মকর্তা হান্নান খান স্ত্রী সিদ্দিকা হান্নান। ও  ছেলে মোসাব্বির হান্নান খান এবং মেয়ে ফারাহ হান্নান খান তিন্নিকে রেখে গেছেন।

 আব্দুল হান্নান খানের জানাজা,দাফন কাজ সম্পন্নে তদারকি করছেন গ্রামেরই বাসিন্দা লেখক আলী আহম্মদ খান আইয়োব ।তিনি সম্পর্কে আব্দুল হান্নান খানের ভাই। তিনি জানান, আগামীকাল মরদেহ আনা হবে গ্রামে। পূর্বধলা উপজেলা সদরের  জগৎমনি উচ্চ বিদ্যালয়ে সাড়ে ৩টায় জানাজা শেষে বিকাল সাড়ে ৪টায় শেষ জানাজা হবে খলিশাউড় গ্রামে। পরে  পারিবারিক কবরে বাবা, মায়ের পাশে তাকে সমাহিত করা হবে।সে অনুযায়ী প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।

আব্দুল হান্নান খানের পরিবারের সদস্যদের উদ্বৃত করে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইয়াকুব আলী বলেন,জগৎমনি উচ্চ বিদ্যালয়ে সাড়ে ৩টায় জানাজা শেষে বিকাল সাড়ে ৪টায় শেষ জানাজা হবে খলিশাউড় গ্রামে। পরে তাকে পারিবারিক কবরে সমাহিত করা হবে। কাল সকাল থেকে এলাকায় মাইকিং করা হবে।

তিনি বলেন , আমাদের একজন সম্পদ ছিলেন হান্নান খান। খুবই ভাল মানুষ ছিলেন। আমরা এ রকম মানুষ আর পাবো না।

তবে রবিবার রাত সাড়ে ৭টা নাগাদ নেত্রকোণা পুলিশ সুপার আকবর আলী মুনসী বলেন,  আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থার কর্মকর্তাদের সাথে কথা হয়েছে। এখন নাগাদ ঢাকায় না গ্রামের বাড়িতে কোথায় দাফন হবে তা নির্ধারণ হয়নি। করোনার কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাফনের ব্যবস্থা হবে। নেত্রকোণায় দাফন হলে যথাযথ মর্যাদায় চির বিদায়ের ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

জেলা প্রশাসক কাজি মো: আব্দুর রহমান জানান, আব্দুল হান্নান খানকে দাফনের আগে যথাযথ মর্যাদায় রাষ্ট্রীয়ভাবে গার্ড অব অনার দেয়া হবে। তবে তিনিও কবে কখন কোথায় জানাজা ও দাফন হবে তা নিশ্চিত করে বলতে পারেননি।

মারা যাওয়ার পর পরই তার মৃত্যরে খবর গ্রামের বাড়িতে পৌছে যায়। এর পরই বাড়িতে থাকা তার চাচাত ভাই, ভাতিজাসহ স্বজনদের মাঝে শোক শুরু হয়। তখন বাড়িটিতে গ্রামসহ এলাকার মানুষের ভীড় বাড়তে থাকে। এসময় স্বজনদের অনেককেই যেমন কাঁদতে দেখা গেছে, তেমনি গ্রামবাসির অনেককেও চোখের জল মুছতে দেখা গেছে।

ভাতিজা রাশেদ কদ্দুছ খান সুজন স্মৃতিচারণ করে  বলেন, চাচা ছিলেন বিশাল হৃদয়ের মানুষ।সদা হাস্যোজ্জ্বল। কারও কোন সমস্যা দেখা দিলে তিনি সমাধানে এগিয়ে যেতেন।

গ্রামের বাসিন্দা আমিনুল ইসলাম মনি বলেন, আমরা গ্রামের মানুষ একজন প্রকৃত অভিবাবক হারালাম।  আমাদের গ্রামের এই কৃতি মানুষটির জন্যে আমরা গর্বিত ছিলাম। তিনি কখনও কারও সাথে খারাপ আচরণ করতে দেখিনি। আমাদেরকে পরম মমতার বন্ধনে আবদ্ধ করে রাখতেন।তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের পরিবেশ চলছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা এবং দেশবাসি এমন একজন মানুষকে হারালাম যা আর কোনদিন পূরণ হবেনা।

জেলা সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের সভাপতি শামছুজ্জোহা বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হান্নানের প্রয়াণ আমাদের ব্যথিত করেছে। আমরা শোকাহত।

 ২০০১ সালে পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি হিসেবে অবসরে যাওয়ার পর হান্নান খানকে  ২০১১ সালের ১২ জানুয়ারি  আইজিপি পদমর্যাদায় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থার সমন্বয়ক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়।

পুলিশ বিভাগের চৌকস এই কর্মকর্তা এর আগে বঙ্গবন্ধু হত্যা ও জেলহত্যা মামলার তদন্তেও প্রধান সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করেন।

১৯৭২ সালে তিনি পুলিশ বিভাগে এএসপি পদে যোগ দেন। এর আগে বিভিন্ন কলেজে তিনি ইংরেজি বিভাগে শিক্ষকতা করেন।

বাংলানিউজ লাইন.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: