Bangla News Line Logo
bangla fonts
১২ মাঘ ১৪২৭, মঙ্গলবার ২৬ জানুয়ারি ২০২১, ২:০৮ পূর্বাহ্ণ
facebook twitter google plus rss
সর্বশেষ
গৃহহীনদের লাঞ্ছনা দিনের অবসান কেন্দুয়া-মোহনগঞ্জে নৌকার বিপুল জয়ে প্রশান্ত’র অভিনন্দন নেত্রকোণা পৌরসভা: ইভিএমের ভোটে ৬৬ প্রার্থীতা মোহনগঞ্জ পৌরসভায় আ. লীগ প্রার্থী জয়ী কেন্দুয়া পৌরসভা আবারো আ. লীগের দখলে

“হাওরাঞ্চলের শিক্ষা বিস্তারে জীবন সরকার ছিলেন নিবেদিত প্রাণ”


নিজস্ব প্রতিবেদক, বাংলানিউজলাইন ডটকম:4:01:21 PM12/26/2020


“হাওরাঞ্চলের শিক্ষা বিস্তারে জীবন সরকার ছিলেন নিবেদিত প্রাণ”

নেত্রকোণার মোহনগঞ্জের শিক্ষক  জীবন চন্দ্র সরকার আজীবন হাওরাঞ্চলের শিক্ষা বিস্তারে ছিলেন নিবেদিত প্রাণ। জীবনের সুখ স্বাচ্ছন্দ্যের কথা না ভেবে অবহেলিত এই অঞ্চলে শিক্ষকতা করেছেন। হাওরাঞ্চলের মাটিকে উর্বর করতে, হৃদ্য করতে , সমৃদ্ধ, সুখি করতে নিজেকে বিলিয়ে গেছেন অকৃপণভাবে।  এ কথাগুলো বলেন, সুপ্রীম কোর্টের আপীল বিভাগের  বিচারপতি ওবায়দুল হাসান।
 তিনি গতকাল শুক্রবার মোহনগঞ্জের শহীদ স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রয়াত জীবন চন্দ্র সরকারের  স্মরণসভায়  এসব কথা বলেন।
স্থানীয় আদর্শনগর শহীদ স্মৃতি মহাবিদ্যালয়ের মিলনায়তন কক্ষে বিকালে শহীদ স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা এই স্মরণ সভার  আয়োজন করেন।
১৯৬৬ সালে স্থাপিত শহীদ স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়, কুলপতাক এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটিতে প্রতিষ্ঠাকালীণ সময় থেকে  শিক্ষকতা করেছেন জীবন চন্দ্র সরকার।  ডিঙ্গাপোতা হাওরপাড়ের গ্রাম কুলপতাকের বাসিন্দা মানুষ গড়ার এই কারিগর  গত  ২৩ নভেম্বর সকাল ৮ টায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন। মারা যাওয়ার আগে তিনি জীবনের ৮২ টি বছর অতিক্রম করেছেন আর ২০০৪ সালে ২৮ আগষ্ট অবসরে যাওয়ার আগে টানা ৩৮ বছর হাওরপাড়ের এই বিদ্যালয়টিতে শিক্ষকতা করেছেন।বিশিষ্ট এই শিক্ষানুরাগী জীবন চন্দ্র সরকার ছিলেন একজন দায়িত্বশীল শিক্ষক, ক্রীড়াবিদ, সংস্কৃতিপরায়ন, সমাজসেবক। তিনি এলাকায় একজন স্বজ্জন মানুষ হিসেবে পরিচিত ছিলেন।
স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল হাসান সেলিমের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় প্রধান অতিথি বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ছাড়াও , বক্তব্য রাখেন,  অধ্যক্ষ জীবন কৃষ্ণ সরকার, মোহনগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজনিন সুলতানা, মোহনগঞ্জ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান দিলীপ দত্ত, শিক্ষানুরাগী নূরুন্নবী চৌধুরী, আওয়ামী লীগ নেতা বজলুর রহমান চৌধুরী, কৃষকলীগ নেতা মো: ইকবাল হোসেন, শিক্ষক জীবন চন্দ্র সরকারের ছেলে শিক্ষক প্রলয় সরকার, শহীদ স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী ইনাম আহমেদ হাসান সনি ।
সভায় স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল হাসান সেলিম বলেন, তিনি এমন এক সময়ে হাওরের শিক্ষা বিস্তারে কাজ করেছেন তখন এই হাওর ছিল একেবারেই অবহেলিত। অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে পড়া এক জনপদ। শিক্ষকতায় তার অবদান এই হাওরাঞ্চলেন মানুষ কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণে রাখবে।
অধ্যক্ষ জীবন কৃষ্ণ সরকার বলেন, তার  জীবন ও আদর্শ  যেমনি শিক্ষার্থীদের অনুসরণ করা দরকার তেমনি শিক্ষকদেরও অনুসরণ করা দরকার। তিনি যে দরদ দিয়ে শিক্ষার্থীদের গড়ে তুলতেন তা আমাদের জন্যে শিক্ষণীয় এবং অনুপ্রেরণার।
শিক্ষানুরাগী নূরুন্নবী চৌধুরী বলেন, দীর্ঘ সময়জুড়ে হাওরাঞ্চলের শিক্ষায় তিনি যে ত্যাগ স্বীকার করে গেছেন তা যুগ যুগ ধরে এখানের মানুষ স্মরণে রাখবে।
আওয়ামী লীগ নেতা বজলুর রহমান চৌধুরী বলেন, শিক্ষক জীবন চন্দ্র সরকারের জীবন ও কর্মকে বর্তমান প্রজন্মের শিক্ষকদের অনুসরণ করা উচিৎ। তাহলে এখানের শিক্ষার আরো প্রসার হবে। এভাবেই তার প্রতি প্রকৃত শ্রদ্ধা জানানো হবে বলেন, তিনি।



 
 

বাংলানিউজ লাইন.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: