Bangla News Line Logo
bangla fonts
৪ ভাদ্র ১৪২৬, সোমবার ১৯ আগস্ট ২০১৯, ২:২০ অপরাহ্ণ
facebook twitter google plus rss
সর্বশেষ
জানিয়ার চর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নানা অনিয়মের অভিযোগ নেত্রকোণায় পানিতে ডুবে বৃদ্ধের মৃত্যু কেন্দুয়ায় জমি চাষের সময় বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু কেন্দুয়ায় বিলে বেড়াতে গিয়ে নৌকা ডুবে শিশুর মৃত্যু নেত্রকোণায় কেরাম খেলা নিয়ে পিটুনিতে যুবক নিহত

শিশুর মস্তক ছিন্ন : আতংকিত না হওয়ার আহবান নেত্রকোণা পুলিশের


নিজস্ব প্রতিবেদক, বাংলানিউজলাইন ডটকম:6:38:34 PM07/18/2019


শিশুর মস্তক ছিন্ন : আতংকিত না হওয়ার আহবান নেত্রকোণা পুলিশের


নেত্রকোণায় গলা কেটে এক শিশুর মস্তক ছিন্ন করে ব্যাগের ভিতরে নিয়ে হরিজন পল্লীতে মদ খেতে গিয়ে স্থানীয়দের গণপিটুনিতে যুবক নিহতের ঘটনায় জনসাধারণকে আতংকিত না হতে আহবান জানিয়েছে নেত্রকোণা পুলিশ।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে (ফেসবুক) নেত্রকোণা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নামে আইডি থেকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল আলম এই আহবান জানান। সেখানে তিনি বলেছেন,  যুবক রবিন  ও শিশু সজিবের বাবা রইছ উদ্দিন উভয়েই রিক্সাচালক ও একই এলাকায় বাস করেন।তাদের মধ্যে সুসম্পর্কও ছিল। রবিন ড্যান্ডিতে (মাদক) আসক্ত। যেখানে সজিবকে খুন করা হয় সেখানে রবিন মাঝে মাঝে নেশা করত।কি কারণে শিশু সজিবকে খুন করল রবিন এই রহস্য বের করবে পুলিশ।এই হত্যার পিছনে যদি কেউ থেকে থাকে তাকেও খুজে বের করা হবে এবং পুরো বিষয় জানানো হবে।

তিনি বলেন, “ সম্মানীত অভিভাবকদের কাছে অনুরোধ আপনারা আতংকিত হবেন না।নেত্রকোণা জেলা পুলিশ আপনাদের পাশে আছে সবসময়। “

শিশু সজিব ও রবিন হত্যার  ঘটনায় পুলিশ থানায় এনে তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। যুবকের মোবাইল ফোন থেকে তথ্য উদ্ধারে কাজ করছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার  শহরের নিউটাউন এলাকার অনন্তপুকুর পাড়ে এই গণপিটুনির  ঘটনা হয়।

সারাদেশের ন্যায় নেত্রকোণাতেও পদ্মাসেতুতে  মানুষের মাথার প্রয়োজন এমন গুজবের মধ্যেই শিশুর  মস্তক ছিন্ন করে নিয়ে যাওয়ার এই  ঘটনা ঘটল।

শিশুটি হচ্ছে- নেত্রকোণা সদর উপজেলার আমতলা গ্রামের রিক্সাচালক রইছ উদ্দিনের ছেলে সজীব (৮)। রইছ উদ্দিন বর্তমানে শহরের কাটলি এলাকায় হিরণ মিয়ার বাসায় ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছেন।

তদন্তের স্বার্থে জিজ্ঞাসাবাদের জন্যে থানায় আনা তিন জনের নাম প্রকাশ করেনি পুলিশ।
নিহত যুবক হচ্ছেন- শহরের কাটলি এলাকার একলাছ উদ্দিনের ছেলে রবিন (২২)। পেশায় তিনিও রিক্সাচালক ছিলেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) শাহজাহান মিয়া  জানান, বেলা সাড়ে ১২টার  দিকে  শহরের বারহাট্রা রোড এলাকার হরিজন পল্লীতে যুবক রবিন ব্যাগ হাতে মদ খেতে যায়। সেখানের এক ঘরে মদ না পেয়ে অন্য ঘরে যাওয়ার সময় ব্যাগ থেকে রক্ত পড়তে দেখেন হরিজন পল্লীর লোকজন। তখন তাকে জিজ্ঞেস করলে সে সঠিক জবাব দিতে না পারায় ব্যাগ খুলে শিশুর মস্তক দেখতে পান স্থানীয়রা। এ সময় সে মস্তক নিয়ে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। স্থানীয়রাও তার পিছু ধাওয়া করে নিউটাউন এলাকার অনন্ত পুকুর পাড়ে তাকে ধরে গণপিটুনি দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই রবিন মারা যান।  পরে পুলিশ নিহত শিশু সজিবের দেহ কাটলি এলাকার একটি তিনতলা নির্মাণাধীন ভবনের নীচতলা থেকে উদ্ধার করে। পুলিশ  শিশুর ছিন্ন মস্তক, দেহ ও যুবকের লাশ উদ্ধার করে নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতালে  পাঠায়। 

তিনি আরো জানান, যুবক রবিনের ব্যবহার করা মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়েছে। প্রযুক্তি ব্যবহার করে জব্দকৃত মোবাইল ফোন থেকে তথ্য উদ্ধারে কাজ করছে পুলিশ। থানায় পৃথক দুইটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। এর মধ্যে যুবক নিহতের ঘটনায় অজ্ঞাতনামাদের আসামী করা হবে বলে জানান তিনি।

 

বাংলানিউজ লাইন.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: