Bangla News Line Logo
bangla fonts
১২ মাঘ ১৪২৭, মঙ্গলবার ২৬ জানুয়ারি ২০২১, ১:৩৬ পূর্বাহ্ণ
facebook twitter google plus rss
সর্বশেষ
গৃহহীনদের লাঞ্ছনা দিনের অবসান কেন্দুয়া-মোহনগঞ্জে নৌকার বিপুল জয়ে প্রশান্ত’র অভিনন্দন নেত্রকোণা পৌরসভা: ইভিএমের ভোটে ৬৬ প্রার্থীতা মোহনগঞ্জ পৌরসভায় আ. লীগ প্রার্থী জয়ী কেন্দুয়া পৌরসভা আবারো আ. লীগের দখলে

শহরের মাদক সেবন স্পটে অভিযান চলবে-নেত্রকোণা জেলা প্রশাসক


নিজস্ব প্রতিবেদক, বাংলানিউজলাইন ডটকম:1:36:35 PM01/02/2021


শহরের  মাদক সেবন স্পটে অভিযান চলবে-নেত্রকোণা জেলা প্রশাসক

  নেত্রকোণা জেলা প্রশাসক কাজি মো: আব্দুর রহমান বলেন, শুধু মাদকের আমদানি, কারবারি ঠেকিয়ে মাদক নির্মূল হবে না। মাদকের চাহিদা কমাতে সবাইকে একসাথে কাজ করতে হবে। আরো সচেতনতা কার্যক্রম বাড়াতে হবে। প্রত্যেকটি পরিবার থেকে শুরু করে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার উপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।
তিনি বলেন, জেলায় থাকা ভারতীয়  সীমান্ত এলাকায় মাদক পাচার রোধে সকল বাহিনীকে অভিযানের সাথে সম্পৃক্ত করা হবে। মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরে জনবল বাড়ানো হবে। মাদকের স্পষ্ট তথ্য প্রদান, মাদক সংশ্লিষ্টতায় আটককৃত অপরাধ সংঘটনের স্থানেই ভ্রাম্যমান আদালতের আওতায় দ্রুত বিচার, মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্র নিয়মিত মনিটরিংয়ের আওতায় আনা ও এসব প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স প্রাপ্তির যোগ্যতার মাপকাঠি যাচাই করে দেখা করে দেখা হবে। শহরের  দত্ত স্কুল মাঠ, বিএডিসি ফার্ম, শ্মশান ঘাট, কেডিসি ভবন চত্ত্বর, বড় স্টেশনসহ নেত্রকোণা শহরের বেশ কয়েকটি মাদকদ্রব্য সেবন স্পটে পুলিশি তৎপরতা বাড়ানো ও মনিটরিং জোরদার করা হবে।

নেত্রকোণায় “মাদককে রুখবো, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়বো”এই প্রতিপাদ্যে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের ৩১ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর আলোচনসভায় এসব  কথা বলেন।

শনিবার সকালে জেলা মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের আয়োজিত কর্মসূচির মধ্যে ছিল, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পূস্পস্তবক অর্পণ, সচেতনতা বাড়াতে মনিটর উদ্বোধন ও আলোচনা সভা।

পুলিশ সুপার  আকবর আলী মুনসী বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশ জিরাে টলারেন্সে কাজ করেছ। কাউকেই ছাড় দিচ্ছেনা। হোক পুলিশ, সরকারি চাকুরে, সাংবাদিক, রাজনীতিক, যত বড়ই হোকনা কেন আমরা তাদেরকে অপরাধী হিসেবেই গন্য করি।

জেলা মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আলি হায়দার রাসেল জানান, জেলায় গত এক বছরে চালানো ৪৪১ অভিযানে ৮৮ জন আসামকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।এদের বিরুদ্ধে ৭৯টি মামলা দায়েরকরা হয়েছে। এসব মামলার ৫০ জন আসামী পলাতক রয়েছেন।এছাড়াও ৫০ টি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়। অভিযানে চোলাইমদ, ওয়াশ, গাঁজা, ইয়াবা, হেরোইন,ডায়জিপাম, বিদেশীমদ জব্দ করা হয়েছে।
তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে বছরের বেশিরভাগ সময়টাতে অভিযান কিছুটা কম হয়েছে। এখন অভিযান আরো বাড়ানো হবে।

জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে অতিরিক্ত জেলা জেলা প্রশাসক সোহেল মাহমুদের সভাপতিত্বে আলোচনাসভায় বক্তব্য রাখেন, জেলাপ্রশাসক কাজি মোঃ আবদুর রহমান, পুলিশ সুপার আকবর আলী মুনসী,মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালকআলি হায়দার রাসেলসহ অন্যরা।

বাংলানিউজ লাইন.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: