Bangla News Line Logo
bangla fonts
২৩ আষাঢ় ১৪২৭, বুধবার ০৮ জুলাই ২০২০, ১০:৩৮ পূর্বাহ্ণ
facebook twitter google plus rss
সর্বশেষ
করোনা: নেত্রকোণায় উপজেলা ভুমি অফিস সহকারির মৃত্যু কেন্দুয়ায় প্রতিপক্ষের পিটুনিতে নারীর মৃত্যুর অভিযোগ নেত্রকোণায় বন্যার পানিতে দুই উপজেলার শতাধিক গ্রাম প্লবিত কবি পলাশ ভার্চুয়াল ভালবাসায় সিক্ত নেত্রকোণায় একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্ত ৬৬ জন

নেত্রকোণায় সাবরেজিষ্ট্রারের বিরুদ্ধে ঘুষ-দুর্ণীতির অভিযোগ


নিজস্ব প্রতিবেদক, বাংলানিউজলাইন ডটকম:5:12:28 PM12/05/2019


নেত্রকোণায় সাবরেজিষ্ট্রারের বিরুদ্ধে ঘুষ-দুর্ণীতির অভিযোগ

নেত্রকোণার কলমাকান্দায়  সাবরেজিষ্ট্রার রহমত উল্লাহ লতিফের বিরুদ্ধে ঘুষ-দুর্ণীতির অভিযোগ উঠেছে।সাবরেজিষ্ট্রারের অনিয়ম দুর্ণীতির আইনগত ব্যবস্থা চেয়ে কলমাকান্দা দলিল লিখক সমিতির সদস্যরা অনির্দিষ্টকালের জন্যে কলমবিরতি কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন।কলমবিরতি কর্মসূচির কারণে  সাবরেজিষ্ট্রার কার্যালয়টিতে দলিল সম্পাদনের কাজ বন্ধ হয়ে যায়। এতে করে জমি ক্রেতা বিক্রেতারা তাদের দলিল সম্পাদনে বিপাকে পড়েছেন।

বৃহস্পতিবার  সকাল থেকে কর্মসূচি পালনের পাশাপাশি সমিতির ৪৫ জন সদস্য স্বাক্ষরিত একটি লিখিত অভিযোগ উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের কাছে দায়ের করার কথা জানিয়েছেন সমিতির সভাপতি  আক্তার হোসেন।

লিখিত অভিযোগে বলা হয়,  সাব-কাওলাসহ বিভিন্ন দলিল সম্পাদনে প্রতি ১লাখ টাকায় তিন হাজার ১০০টাকা করে ঘোষবাবদ না দিলে দলিল সম্পাদনের কাজ করেননা। কমিশনে দলিল করার ক্ষেত্রে সাত থেকে ১৫ হাজার টাকা ঘোষের বাইরেও প্রতিলাখে ৫ হাজার টাকা করে অতিরিক্ত আদায় করেন। নকল সরবরাহসহ অন্যান্য কাগজপত্র সরবরাহে ঘোষবাবদ নেন একহাজার টাকা। এছাড়া দলিল লেখক, দলিলের দাতা ও গ্রহিতাদের সাথে অসদাচরণ করার অভিযোগও করা হয়।

সাবরেজিষ্ট্রারের এই দুর্ণীতি থেকে পরিত্রাণ পেতে জেলা প্রশাসক, জেলা রেজিষ্ট্রার, দুদকসহ সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরেও অভিযোগের অনুলিপি দেয়া হয়ে বলে জানিয়েছেন, সমিতির সাধারণ সম্পাদক গোপাল তালুকদার।

 গোপাল তালুকদার বলেন, সাবরেজিষ্ট্রার রহমত উল্লাহ লতিফকে প্রত্যাহারসহ তার অনিয়ম দুর্ণীতির নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে শাস্থি নিশ্চিত করতে

হবে। অন্যথায় কোন দলিল লিখক কাজ করবেনা।

কলমাকান্দা বাজারের বাসিন্দা মো: রতন মিয়া তার এক খন্ড জমি বিক্রি করেছেন প্রতিবেশি চায়না আক্তারের কাছে। বৃহস্পতিবার দলিল সম্পাদন করতে যেয়ে দলিল করে দিতে পারেননি। তিনি বলেন, সাবরেজিষ্ট্রারের দুর্ণীতি নিয়ে দলিল লিখকেরা কলম বিরতি পালন করায় দলিলটি করতে পারিনি। অথচ দলিলটি আজ করে দিতে পারলে জমি বেচার টাকাটা পেতাম। টাকাটার খুবই দরকার ছিল। হয়রানিতে পড়ে গেলাম। একই ধরণের  অবস্থার কথা জানিয়েছেন, রায়পুর গ্রামের ইসমাইল হোসেন। এরকম ানেকেই দলিল করতে না পেরে পিরে গেছেন।

কলমাকান্দা উপজেলা সাবরেজিষ্ট্রার রহমত উল্লাহ লতিফ তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। 

বাংলানিউজ লাইন.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:

জাতীয় -এর সর্বশেষ