Bangla News Line Logo
bangla fonts
২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, শুক্রবার ০৫ জুন ২০২০, ২:৩৭ পূর্বাহ্ণ
facebook twitter google plus rss
সর্বশেষ
পূর্বধলায় মাহেন্দ্র ট্রাক্টর-অটোরিক্সার সংঘর্ষে নিহত-১,আহত ৫ করোনা পরিস্থিতি : নেত্রকোণায় ৩২ জনকে তিন লাখ টাকা জরিমানা নেত্রকোণায় চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মীসহ ৬ জন করোনায় শনাক্ত নেত্রকোণায় ব্যাংকারসহ ২০ জন করোনায় শনাক্ত নেত্রকোণায় ফেসবুক হ্যাক করে চাদাঁবাজি চক্রের একজন আটক

নেত্রকোণায় রমজানকে সামনে রেখে কাঁচা বাজারে সব পন্যের দাম বেড়েছে


নিজস্ব প্রতিবেদক, বাংলানিউজলাইন ডটকম:


নেত্রকোণায় রমজানকে সামনে রেখে কাঁচা বাজারে সব পন্যের দাম বেড়েছে

নেত্রকোণায় রমজানকে সামনে রেখে কাঁচা বাজারে সব পন্যের দাম বেড়ে গেছে। এতে করে ক্রেতারা পড়েছেন বিপাকে। রমজানকে উছিলা করে হঠাত করেই কাচা পন্যের দাম বাড়ায় ক্রেতারা ক্ষুব্ধ।
শুক্রবার সকাল থেকেই কাঁচা বাজারগুলোতে আদা, পেয়াজ, রসুন, আলুর দাম যেমন বেড়েছে তেমনি সব ধরণের সবজির দামও কেজি প্রতি ১০ থেকে ২০টাকা করে বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে।
আদা কেজিতে ৮০ থেকে ৯০ টাকা বেড়ে ৩২০টাকা কেজি, পিয়াজ কেজিতে ৮ থেকে ১০ টাকা বেড়ে ৫৫ টাকা কেজি, রসুনে ৪০ টাকা বেড়ে প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ১ ৩০টাকা । আলুতেও প্রতি কেজিতে বেড়েছে ৪ থেকে ৫ টাকা। বেগুন, শশা, লেবু, লাউ, করলাসহ সব সবজিই বেশি দামে বেচা হচ্ছে।
খুচরা বিক্রেতারা বলছেন, পাইকারি বাজারে দাম বেড়েছে। তাছাড়া চাহিদার তুলনায় সরবরাহ কম থাকায় বাজার উর্ধ্বমূখী।
শহরের আখড়া মোড় বাজারের পেয়াজ , আদা , রসুন এক দোকানি বলেন, আদা ১০ ১২ দিন আগের চেয়ে কেজিতে ৮০ তেকে ৯০ টাকা বেশি পড়তেছে আমাদের কিনার মধ্যে। আলু পড়তাছে ৪/৫ টাকা বেশি। পিয়াজ ৮/১০ টাকা বেশি। রসুন ৩০ থে কে ৪০ টাকা বেশি পড়তাছে কিনায়।মুলত পাইকারি বাজারেই এখন বেশি।এই কারণেই আমাদের বেশি বেচতে হইতাছে।
একই বাজারের এক সবজি বিক্রেতা বলেন, পবিত্র রমজান মাসে আমদানি কম, দাম বেশি। ্রপতি কেজিতে ১০ টাকা ২০ টাকা ৫ টাকা করে বেশি।প্রত্যেকটারই বেশি। মানুষ নিতাছে বেশি আমদানিও কম। কিছু কিছু লোক াাছে যাদের আর্থিক অবস্থা কম তাদের জিনিষ কিনতে কুব কষ্ট হইতাছে। লেবু ৩০/৪০ টাকা হালি। বেগুন কালকে ৩০ ছিল। আজকে ৪০টাকা। আগামীকাল ৫০ হইতে পারে। শশা কালকে ১৫ টাকা ১০টাকাও বিক্রি হইছে। আজকে ২৫ /৩০ বিক্রি করতাছি। ঝিঙ্গা কালকে ৩০টাকা বেচা হইছে াাজকে ৫০টাকা।৪৫ টাকা। কাকরুল ১০০টাকা কেজি। কালকে বেচা হইছে ৯০ টাকা কেজি।পটল কালকে ৩০টাকা ছিল। আজকে ৪০টাকা। কারণ আমদানি কম। মানুষ চাইতাছে বেশি তাই বেড়েছে।
বাজারটিতে পন্য কিনতে আসা এক ক্রেতা বলেন, এবাবে বাজার অনিয়ন্ত্রিত তা মানা যায়না। বাজার নিয়ন্ত্রণে প্রশাসনের দ্রæত হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।
তিনি বলেন,আমরা মধ্যবিত্ত পরিবারের লোক।আমরা রোজা রমজান মাসে আসছি বাজার করতে। বাজার উর্ধ্বমূখী। করোনার কারণে জিনিষের দাম াতিরিক্ত বৃদ্ধি। এতে করে আমাদের দুর্ভোগ পোহাইতে হইতাছে। আমাদের সরকারের কাছে আবেদন যাতে বাজার নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা রাখে।

বাংলানিউজ লাইন.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: