Bangla News Line Logo
bangla fonts
২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, শুক্রবার ০৫ জুন ২০২০, ২:১২ পূর্বাহ্ণ
facebook twitter google plus rss
সর্বশেষ
পূর্বধলায় মাহেন্দ্র ট্রাক্টর-অটোরিক্সার সংঘর্ষে নিহত-১,আহত ৫ করোনা পরিস্থিতি : নেত্রকোণায় ৩২ জনকে তিন লাখ টাকা জরিমানা নেত্রকোণায় চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মীসহ ৬ জন করোনায় শনাক্ত নেত্রকোণায় ব্যাংকারসহ ২০ জন করোনায় শনাক্ত নেত্রকোণায় ফেসবুক হ্যাক করে চাদাঁবাজি চক্রের একজন আটক

করোনা: নেত্রকোণায় ছয়জনের পর রাতে আরো দুইজন শনাক্ত


নিজস্ব প্রতিবেদক, বাংলানিউজলাইন ডটকম:10:06:16 PM04/14/2020


করোনা: নেত্রকোণায় ছয়জনের পর রাতে আরো দুইজন শনাক্ত

নেত্রকোণায় আরো দুইজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে।

এনিয়ে মঙ্গলবার রাত ৯টা নাগাদ আসা নমুনার ফলাফলে মোট আটজন আক্রান্ত হলেন।

নতুন দুইজন আক্রান্তের মধ্যে একজন হলেন, বারহাট্রা উপজেলার আসমা গ্রামের ৯০ বছরের এক বৃদ্ধ। অন্যজন হলেন, খালিয়াজুরী উপজেলার জগন্নাথপুর গ্রামের ২৫ বছরের এক যুবক। এ নিয়ে বারহাট্রা উপজেলায় আটজন আক্রান্ত হলেন।  

এর আগে বিকালে নমুনার ফলাপফলে নারায়নগঞ্জ ফেরত ৬ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হন। এর মধ্যে ৪ জন নারী ও দুই জন পুরুষ। আক্রান্ত সবাই পোশাককর্মী। তারা নারায়ণগঞ্জেরে একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতো। 

এর আগে গতকাল ১৩ এপ্রিল নারায়নগঞ্জ ফেরত আরো একজন জেলার মোহনগঞ্জের ২২ বছরের যুবক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন।
সিভিলসার্জন তাজুল ইসলাম জানান, ৩৬ জনের নমুনা পাঠানো হয়েছিল তাদের মধ্যে ৮ জনের পজেটিভ এসেছে। এদের  মধ্যে একজনের বয়স ৯০ । বাকিদের সবার বয়স ২৫ থেকে ৪৮ এর মধ্যে।  আক্রান্তদের মধ্যে ৬ জন  নারায়ণগঞ্জ থেকে গত ৪ এপ্রিল নেত্রকোণার বারহাট্রা উপজেলার দেওপুর ও চানপুর গ্রামের বাড়িতে আসেন। তারা সর্দি ,জ্বরে ভুগছিলেন। শনাক্ত হওয়া  সকলের প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

এ নিয়ে নেত্রকোণায় আক্রান্ত বেড়ে ১৩ জন হয়েছেন। প্রথম আক্রান্ত শনাক্ত হন দুইজন একদিনে। খালিয়াজুরী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জ্যেষ্ঠ সেবিকা ও সদর উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামের এক ব্যক্তি। পরে আরো দুইজন আক্রান্ত হন। সদর উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামের এক নারী ও লক্ষীগঞ্জ গ্রামের এক উন্নয়নকর্মী। তবে উন্নয়নকর্মী আছেন একই উপজেলার মনাং গ্রামের শ্বশুরালয়ে। জেলায় আক্রান্ত ১১ জনের মধ্যে ৬জন নারী ও ৫জন পুরুষ রয়েছেন। করোনাভাইরাসে শনাক্ত হওয়াদের মধ্যে বারহাট্রার দেওপুর গ্রামেই ৫জন আর সদর উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামে ২জন রয়েছেন।

শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় আক্রান্ত জ্যেষ্ঠ সেবিকাকেই একমাত্র ময়মনসিংহের এসকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বাকিরা সবাই নিজ বাড়িতে অথবা  নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

মঙ্গলবার সকাল ৮টা পর্যন্ত দেশে ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৯০৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২০৯ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। তাতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ হাজার ১২ জন। 

বাংলানিউজ লাইন.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: